সদ্যপ্রাপ্ত

আজ মধ্যরাতে দেখা যাবে ‘মনোমুগ্ধকর’ উল্কাবৃষ্টি

আজ রোববার (১৩ ডিসেম্বর) ও সোমবার (১৪ ডিসেম্বর) মধ্যরাতে দেখা যাবে উল্কাবৃষ্টি বৃষ্টি। আজ আকাশের একপ্রান্ত থেকে ছিটকে অন্যপ্রান্তে পৌঁছবে উল্কা। একটা নয় অসংখ্য। ঘণ্টায় অন্তত ১৫০টি। আর সেই অসম্ভব সুন্দর উল্কাবৃষ্টি শুরু হবে মধ্যরাতের পরেই। চলবে পরের দিনের ভোর পর্যন্ত। উল্কাবৃষ্টি দেখা যাবে আকাশের পূর্ব থেকে উত্তর-পূর্ব অংশে।

জ্যোতির্বিজ্ঞানী প্যাট্রিশিয়া স্কেলটন বলেন, ধূমকেতুর রেখে যাওয়া ধুলিকণায় ভরা আস্তরণের মধ্যে দিয়ে যখন পৃথিবী প্রদক্ষিণ করে, তখনই সাধারণত উল্কাবৃষ্টি ঘটে থাকে। কিন্তু জেমিনিডস উল্কাবৃষ্টিপাত ভিন্ন ধরনের। জেমিনিডস উল্কাবৃষ্টি হয় যখন ৩২০০-ফিটন নামে একটি গ্রহাণুর ছেড়ে যাওয়া ধুলিকণার আস্তরের মধ্যে দিয়ে পৃথিবী যায়। আজ ও আগামী যে উল্কাবৃষ্টি হতে যাচ্ছে, জ্যোতির্বিজ্ঞানীরা বলছেন সেটা হবে ‘সব উল্কাবৃষ্টির রাজা’।

জেমিনিডসের উল্কাবৃষ্টি প্রতি ঘণ্টায় দেড়শ’র মতো উল্কার ধারা বৃষ্টি হবে বলে জ্যোতির্বজ্ঞানীরা বলছেন। অর্থাৎ প্রতি ঘণ্টায় আমরা ১৫০ আলোর ফোঁটার বিচ্ছুরণ দেখতে পাবো।

নিজের ঘরে বসেই আকাশের এ অভিনব দৃশ্য আপনি উপভোগ করতে পারবেন, তার জন্য টেলিস্কোপ বা কোনো যন্ত্রপাতির প্রয়োজন হবে না। আকাশ যত অন্ধকার হবে, এ অসাধারণ সুন্দর আলোর রোশনাই তত বেশি উপভোগ করার সুযোগ হবে।

প্যাট্রিশিয়া বলেন, উল্কার কণাগুলো পুড়ে গিয়ে আকাশে এদিক ওদিক ছিটকে পড়ার কারণে এই আলোর রোশনাই আমরা দেখতে পাবো।

এছাড়াও চেক করুন

স্পার্ম জালিয়াতি করে ৪৯ বাচ্চার বাবা হয়েছেন এক ডাক্তার…

তার নাম জন কারবাট। পেশায় চিকিৎসক। নেদারল্যান্ডসের হেগ শহরে একটি আইভিএফ ক্লিনিক চালাতেন। সন্তান পাওয়ার …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *