Friday , January 17 2020
Home / লাইফস্টাইল / স্বাস্হ্য / বিশেষ শিশুদের স্কুলে পাঠানোর জন্য ৫ টি জরুরী টিপস
Child portrait

বিশেষ শিশুদের স্কুলে পাঠানোর জন্য ৫ টি জরুরী টিপস

নতুন স্কুলে যাওয়া অথবা নতুন ক্লাসে উঠার পর অনেক শিশুই ক্লাসে যেতে ভয় পায়। নতুন বন্ধু, নতুনটিচারদের নিয়ে তাদের মনে অনেক সংশয়, অনেক দ্বিধা কাজ করে। বিশেষ শিশুদের ক্ষেত্রেওএর ব্যতিক্রম হয় না। তাদেরও স্কুলে যাওয়ার আগে মনে থাকে হাজারো প্রশ্ন, হাজারো সংশয়। নিম্নে বিশেষ শিশুদের স্কুলে যাওয়ার উপযোগী করে তোলার জন্য ৫ টি সহজ কিন্তু

অতি জরুরী টিপস দেয়া হল-

১) স্কুল ঘুরে আসা

স্কুল শুরুহওয়ার পূর্বে কিছুদিন ধরে স্কুলের অনেক টিচাররা প্রায়ই স্কুলে আসেন। তারা ক্লাসরুমসাজানো, বেঞ্চ সাজানো ইত্যাদি কাজ করেন। এই সময়ে তারা তাদের ভবিষ্যৎ ছাত্র/ছাত্রীদেরপেলে স্বাগত জানান , অনেক সময় তাদের কাজে সাহায্য করতে বলেন। এভাবে স্কুল শুরুর আগে স্কুলেকয়েকবার ঘুরে আসা, ক্লাসরুমটি দেখে আসা, টিচারের সাথে পরিচিত হলে বিশেষ শিশুদের স্কুলেযাওয়ার আতঙ্ক কমে আসে অনেকটা।

২) স্কুল নিয়ে গল্প লেখা

যখন সন্তানকে নিয়ে স্কুলে যাবেন তখন স্কুলের বিভিন্ন জায়গায়, টিচারের সাথে তার ছবি তুলে রাখুন। সবছবিগুলোকে ব্যবহার করে আপনার সন্তানের জন্য লিখে ফেলুন স্কুল নিয়ে মজার কোন গল্প। গল্পটিআপনার সন্তানকে দেখান অথবা পড়ে শোনান।

৩) স্কুলের বুন্ধুদের সাথে পরিচিতি

অনেক স্কুলই ক্লাস শুরুর আগে ক্লাসের ছাত্র-ছাত্রীদের নামের লিস্ট দিয়ে দেয়। এই লিস্ট থেকে অথবাস্কুলে ভর্তির সময় আপনার সন্তানের হবুবন্ধুদের এবং তাদের মা-বাবার সাথে পরিচিত হোন। স্কুল শুরুহওয়ার পূর্বে অন্যান্য শিশুদের সাথে আপনার সন্তানের কয়েকবার দেখা করিয়ে দিন। তাকে স্কুল শুরুরআগেই দুই- এক জন নতুন বন্ধুবানাতে সহায়তা স্কুন। ফলে যখন আপনার সন্তান স্কুলে যাবে তখন সেক্লাসরুমেই কিছুপরিচিত মুখ দেখতে পাবে।

৪) সন্তানকে সাথে নিয়ে স্কুলের জন্য প্রয়োজনীয় শপিং করুন

স্কুলের জন্য প্রয়োজন বই, খাতা, পেন্সিল, ব্যাগ, পানির ফ্লাস্ক ইত্যাদি জিনিসপত্র কিনতে আপনারসন্তানকে সাথে নিয়ে যান। বিভিন্ন দোকান ঘুরে ঘুরে তার পছন্দ মত স্কুলের প্রয়োজনীয় জিনিসগুলিকিনে দিন। এতে সে স্কুলে যাওয়ার আগেই তার সুন্দর জিনিসপত্র নিয়ে গর্ববোধ করবে।

৬) গল্প লিখুন আপনার শিশুর বন্ধুদের জন্য

বিশেষ শিশুদের জন্য আলাদা স্কুল আছে, তবুও অনেকেই সাধারণ স্কুলগুলিকে বেছে নেয় সন্তানের শিক্ষারজন্য। সাধারণ স্কুলগুলিতে আপনার শিশুর বন্ধুবানাতে কিছুটা সময় লাগতে পারে। সেক্ষেত্রে আপনিআপনার সন্তানের পরিচিতি মূলক একটি ছোট বই লিখতে পারেন।বইটিতে আপনি আপনার সন্তানের ব্যাপারে লিখুন। তার পছন্দ অপছন্দ, হবি ইত্যাদি ব্যাপারে লিখেরাখুন।

বইটিতে কিছুটা কঠিন ভাষায়, আপনার সন্তান বুঝতে না পারে এমন ভাষায় সাহায্য চাওয়ার মত

কিছু কথা লিখে রাখুন। যেমন – ” আমি একজন স্মার্ট মেয়ে, কিন্তু কিছু কাজ আমার জন্যঅনেক কষ্টকর। আমার কথা বলতে, আলাপ করতে কিছুটা সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়। আমিপ্রতিদিনই কঠোর পরিশ্রম করছি এবং ধীরে ধীরে এই সমস্যা কাটিয়ে উঠছি। সামনে এগোতেআমার আপনার সাহায্য দরকার। আপনি আমাকে একটু হেল্প করবেন?”।প্রয়োজনীয় কথা লিখে বইটির কয়েকটি কপি করান। কয়েকটি কপি আপনার শিশুর ক্লাসমেটদের বাবা মারসাথে শেয়ার করুন। তাদেরকে জানান আপনার শিশুতাদের শিশুথেকে কেন একটুআলাদা।

এছাড়াও দেখুন

যেসব খাবার পুনরায় গরমে হয় বিষাক্ত

গরম খাবার মানেই টাটকা- সবসময় সেটা ঠিক নয়। অনেক সময় খাবার দ্বিতীয়বার গরম করলে নষ্ট …